মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

দিনাজপুরের খানসামায় প্রশিক্ষণের ভাতা প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী প্রশিক্ষণার্থীরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর প্রশিক্ষণ বাস্তবায়নকারী সংস্থা কলোনীপাড়া মহিলা উন্নয়ন সমিতির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। অপরদিকে একই ঘটনায় মাই ফ্রেশ ওয়াটার টেকনোলজি ও পল্লী ইসলামী সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ লিয়ন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রশিক্ষনার্থীদের ভাতা প্রদান নিশ্চিতকরণে ও বাস্তবায়নকারী সংস্থা কলোনীপাড়া মহিলা উন্নয়ন সমিতির পরিচালক মোছাঃ জান্নাতুস সাফা শাহীনুরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে জেলার ১৩ উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দুদকে অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রশিক্ষনের মাধ‍্যমে নারীর কর্মসংস্থান এবং উদ‍্যোক্তা সৃষ্টি কর্মসূচির আওতায় সমাজের আর্থিক ও সামাজিকভাবে পিছিয়ে পরা দরিদ্র, নিম্নবিত্ত জনগোষ্ঠির নারী সমাজকে সাংগঠনিক কাঠামোর আওতায় এনে প্রশিক্ষনের মাধ‍্যমে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলার লক্ষ‍্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অর্থায়নে জেলার কোন বাস্তবায়নকারী সংস্থার মাধ‍্যমে প্রতিটি উপজেলার ৩০ জন করে মহিলাকে বিভিন্ন ট্রেডের উপর ৩০ দিনের প্রশিক্ষন প্রদান করা হচ্ছে। নারীদের কর্মসংস্হান সৃষ্টি করাই হচ্ছে এই প্রকল্পের উদ্দেশ‍্য।

কিন্তু সরকারের মহতি উদ্যোগকে কলংকিত করছেন কর্মসূচি বাস্তবায়নকারী সংস্থার স্বার্থান্বেষীরা। এদের উদ্দেশ্য সুবিধাবঞ্চিতদের সুবিধা দেয়া নয়, নিজে সুবিধা গ্রহন করা। এদেরই একজন দিনাজপুর কলোনীপাড়া মহিলা উন্নয়ন সংস্থার পরিচালক মোছা. জান্নাতুস সাফা শাহীনুর।

সরকারি কর্মসূচি অনুযায়ী দিনাজপুরের নারীদের বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে প্রশিক্ষনার্থীদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রশিক্ষন ভাতা যথাযত নিয়মতান্ত্রিকভাবে প্রদান না করে সিংহভাগ অর্থ পকেটস্থ করছেন জান্নাতুস সাফা শাহীনুর।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অসহায় নারীদের টাকা আত্বসাত করে ব্যক্তিগত গাড়ী, ঢাকায় ফ্লাটসহ নিজে বিলাসবহুল জীবনযাপন করার অভিযোগ।

প্রশিক্ষণার্থীরা জানান, গত ২১ জানুয়ারী-২৬শে মার্চ পর্যন্ত সেলাই ও এমব্রয়ডারী  প্রশিক্ষন শেষে দীর্ঘ ২মাস পর তাদের প্রশিক্ষন ভাতা বাবদ বরাদ্দকৃত দৈনিক ৫০০ টাকা হারে ১৫ হাজার টাকা প্রদানের কথা থাকলেও ২৯ এপ্রিল শুধুমাত্র একটি করে সেলাই মেশিন দেয়া হয়েছে। কিন্তু জনপ্রতি সরকারের বরাদ্দকৃত ভাতা দেয়া হয়নি, এখনও দিচ্ছে না। তারা আরো বলেন, এই প্রোগ্রামের উদ্ভোধনের দিনে সকলের উপস্থিতিতে জান্নাতুস সাফা শাহিনুর বলেছিলেন, দৈনিক ৫০০ টাকা করে দেয়া হবে কিন্তু দেয়নি।

এ বিষয়ে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা পারভিন জানান, প্রশিক্ষনার্থীদের ৫শ টাকা করে দেয়ার কথা ,কিন্তু কেন দেয়া হলো না এটা আমার বোধগম্য নয়। আমরা এব্যাপারে দুদকে অভিযোগ করেছি তারাই বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন।

কলোনীপাড়া মহিলা উন্নয়ন সমিতির পরিচালক জান্নাতুস সাফা শাহীনুর অভিযোগ অস্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, বর্তমানে যা প্রশিক্ষানার্থীদের মাঝে দিয়েছি সেটাই অনেক বেশী দিয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব উল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর বাস্তবায়নকারী সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।