নিজস্ব প্রতিবেদক:

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার রাণীরবন্দর তাঁত বোর্ড বেসিক সেন্টারের অফিস পিয়ন ওয়ারেজ আলীর বিরুদ্ধে চাকুরী দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে বিচারের দাবীতে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে অতিকান্ত রায়।

গতকাল বুধবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চিরিরবন্দর উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের বড়ভিটা গ্রামের অতিকান্ত রায়ের কন্য প্রিতিবালা রায়।

তিনি লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করেন, নশরতপুর ইউনিয়নের রাণীরবন্দর বালাপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল ছামাদের পূত্র রাণীরবন্দর বেসিক সেন্টার ও বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড অফিসের কর্মচারী মো. ওয়ারেজ আলী । তিনি একই স্থানে দীর্ঘদিন চাকুরী করার সুবাদে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান তার পরম আত্মীয় দাবী করে থাকেন। তাই রাণীরবন্দর তাঁত বোর্ড অফিসের ”অফিস সহকারী পদে নশরতপুর ইউনিয়নের বড়ভিটা গ্রামের অতিকান্ত রায়ের কন্যা প্রিতিবালা রায়কে চাকুরী দেয়ার নামে বিগত ৩ বছর ধরে বিভিন্ন সময়ে দফায় দফায় ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

প্রতারক ওয়ারেজ আলীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অজ্ঞাত কারনে  ধামাচামা দিতে রাজনীতিক নেতা, প্রশাসনসহ একটি কু-চক্র মহল উঠে পড়ে  লেগেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিকান্ত রায়ের পরিবারের সদস্যরা।