বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) এদিনই প্রথম মাঠে নেমেছেন সিলেট সিক্সার্সের তৌহিদ হৃদয়। আর অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। বিশ্বের নানা ফ্রাঞ্চাইজি লিগে খেলে দারুণ অভিজ্ঞও বটে। কিন্তু তাকে বিন্দু মাত্র ছাড় দিলেন না হৃদয়। ভাগ্যক্রমে জীবন পেয়ে গিয়েছিলেন ওয়ার্নার। কিন্তু পরে আম্পায়ারের ভুলের শিকার হলেন এ অস্ট্রেলিয়ান।

ঘটনাটি ঘটে ইনিংসের পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে। শোয়েব মালিকের লেগ স্টাম্পে রাখা বলে ফ্লিক করেছিলেন হৃদয়। স্কয়ার লেগে বল চলে গেলে রান নেওয়ার জন্য দৌড় দেন ওয়ার্নার। কিন্তু সে রান নিতে ইচ্ছুক ছিলেন না এ তরুণ। উইকেট থেকে বেরিয়েছিলেন। কিন্তু ওয়ার্নারকে আসতে দেখে উল্টো নিজের ক্রিজে ঢুকে যান তিনি। তাতে প্রশ্ন ওঠে এ তরুণের মানসিকতা নিয়ে।

কিন্তু ক্রিজে ঢুকতে কিছুটা দেরি করেন হৃদয়। তার আগেই ঢুকে যান ওয়ার্নার। যেহেতু উইকেট ছেড়ে বের হয়েছিলেন, কিন্তু উইকেটে ঢুকতে দেরি করেছিলেন তাও আউট হওয়ার কথা হৃদয়ের। কিন্তু আম্পায়ার অদ্ভুত কারণে আউট ঘোষণা দেন ওয়ার্নারকে। যুক্তি হিসেবে বেল ভাঙার সময়ে ব্যাটসম্যানদের অবস্থান দেখেন। তাতে আবারও প্রশ্ন ওঠে আম্পায়ারের মান নিয়ে।

প্রশ্নটা আরও জোরাল হওয়ার কারণ সিদ্ধান্তটি দিয়েছিলেন তৃতীয় আম্পায়ার শরিফুদ্দৌলা ইবনে শহীদ সৈকত। মাঠের আম্পায়ার খালি চোখে ভুল করতে পারেন। কিন্তু বার বার রিপ্লে দেখে এমন ভুলে প্রশ্ন ওঠে হাজারো। তবে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারের মান নিয়ে প্রশ্ন নতুন কিছু নয়। এর আগেও অনেকবারই এমন ঘটেছে। এমনকি আন্তর্জাতিক ম্যাচেও দেশের আম্পায়াররা নানা ভাবে বিতর্কিত হয়েছেন। আগের দিনও বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দিয়েছেন আম্পায়াররা।

কিন্তু হৃদয়ের এমন স্বার্থপর আচরণে অবাক হয়েছেন সবাই। একজন উঠতি খেলোয়াড়ের এমন মানসিকতা শেষ পর্যন্ত কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে সিলেটের জন্যও। কারণ নিজের উইকেট বাঁচিয়ে দলকে উদ্ধার তো দূরের কথা আরও বিপদে ফেলেছেন। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ২৩ বল খেলে তার মাত্র ৮ রান করেছেন এ ব্যাটসম্যান।

ডেইলী স্টার নিউজ