বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এশিয়া কাপ থেকে ইনজুরির কারণে ছিটকে গিয়েছিলেন।ইনজুরি কাটিয়ে বেশ কিছুদিন পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে মাঠে ফিরেছিলেন দেশসেরা এই অলরাউন্ডার। কিন্তু আবারও ইনজুরির শঙ্কা দেখা দিয়েছে তার সামনে। রোববার(১৬ ডিসেম্বর) বিজয় দিবসে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি সিরিজ উপলক্ষ্যে আনুষ্ঠানিক অনুশীলনের সময় পায়ের গোড়ালিতে চোট পেয়েছেন সাকিব। ব্যথা পাওয়ার সাথে সাথে নেট ছেড়ে ড্রেসিংরুমে চলে যান তিনি।

নেটে পাশাপাশি ব্যাটিং অনুশীলন করছিলেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। বেলা এগারোটায় শুরু হওয়া অনুশীলনে শুরু থেকেই সাবলীল ছিলেন সাকিব। কিন্তু হুট করেই একটি ডেলিভারী এসে আঘাত হানে সাকিবের পায়ে।

সাথে সাথেই ড্রেসিংরুমে চলে যান তিনি। সাকিবের ইনজুরির ধরন কতটা গুরুতর? সেটা কি কালকের ম্যাচ খেলার জন্য কোনো হুমকি? সাকিব কি আগামীকালের ম্যাচ খেলতে পারবেন? তাৎক্ষণিকভাবে এসব প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি। টিম ম্যানেজম্যান্ট থেকেও জানানো হয়নি কিছু।

তবে বিসিবি প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর থেকে জানা যায়, সাকিবের সামনের পায়ের দ্বিতীয় আঙ্গুলে বল লেগেছে, এখন ড্রেসিংরুমে বরফ দেয়া হচ্ছে।এ নিয়ে দেবাশীষ বলেন, বেশ ভালোই ব্যথা পেয়েছে, বরফ দেয়া হচ্ছে। সাকিব বলেছে খুব সিরিয়াস মনে হচ্ছে না, তারপরও আমরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছি। পরবর্তী অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দুপুর দেড়টায় সিরিজ শুরুর আগে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সাকিবের চোটের ব্যাপারে বিস্তারিত আরও জানা যাবে। এর আগে এ ব্যাপারে তেমন কিছু বলতে চাননি কেউই। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ড্রেসিংরুম থেকেও আর অনুশীলন করতে মাঠে আসেননি সাকিব।

সূত্র: পূর্বপশ্চিম