মোহাম্মদ মানিক হোসেনঃ

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে আংশস্কাজনক হারে বাড়ছে করোনা সংক্রমন। আজ মঙ্গলবার নতুন করে চিরিরবন্দরে সর্বোচ্চ আরও ৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলায় মোট ২৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ২ জনের, সুস্থ হয়েছে ৪ জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আজমল হক জানিয়েছেন এ পর্যন্ত চিরিরবন্দরে ২০১ জনের নমুনা পরিক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৯ জন পজেটিভ এসেছে। যা মোট শতাংশের ১০.১ % । চিরিরবন্দরে করোনা ভাইরাসের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন প্রায় শুরু হয়ে গেছে । সবাই যদি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলেন তাহলে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাও চিরিরবন্দরে দিনে দিনে আরো ব্যাপক আকারে বৃদ্ধি পাবে।

তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চললে এক পর্যায়ে করোনাভাইরাস মহামারি নির্মূল করা যাবে এটা আশা করাটাই ভুল  কারণ সামাজিক সংক্রমণ বা কমিউনিটি ট্রান্সমিশন এর মধ্যেই পাকাপোক্তভাবে জায়গা করে নেয় করোনা ভাইরাস। এর ফলে একটা বিরাট ‘সাব-পপুলেশনে’র মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে এই ভাইরাস। তাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচলে তিনি সবাইকে অনুরোধ করেন।

আজ মঙ্গলবার নতুন করে যারা শনাক্ত হয়েছেন
তাদের মধ্যে ৪ জন ইসবপুর ইউনিয়নের উত্তর সুকদেবপুর গ্রামের বাসিন্দা, তারা হলেন, আইয়ব আলী, রাজিয়া সুলতানা,মন্জু আরা,তূর্জ রাণী রায় । অপরদিকে সাইতাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম সাইতাড়া গ্রামের রুহুল আমিন ও হজরত আলী এছাড়া তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের গোন্দল গ্রামের হীরালাল । এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৯ জনে।