মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ঢাকা ফেরত এক সন্তানের জননী ২৭ বছর বয়সী প্রথম এক মহিলার করোনা পসিটিভ সনাক্ত হয়েছে। তিনি ভাবকি ইউনিয়নের আগ্রা গ্রামের দাসপাড়ার নারায়ন চন্দ্র রায়ের স্ত্রী। তিনি ঢাকার মিরপুরে একটি কোম্পানীতে চাকরি করতেন। করোনা পসিটিভ হওয়ায় তার বাড়িকে লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন।

করোনা রোগীর চিকিৎসা সংক্রান্ত মেডিকেল টিমের টিমলিডার ডাঃ ফারুক আহমেদ রিজওয়ান জানান, করোনা পসিটিভ মিথিলা রানী দাস গত ৯ মে শনিবার ঢাকা থেকে বাসায় আসে। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ গতকাল বৃহস্পতিবার তার বাসার নিকট হতে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম. আঃ রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। আজ শুক্রবার তার রির্পোট পসিটিভ আসে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ শামসুদ্দোহা মুকুল জানান, আক্রান্ত ওই নারীর শরীরে করোনার কোন লক্ষণ এখনো দেখা যায়নি। তিনি এখনো সুস্থ আছেন। আগামী ৭ দিন পরে আবারো তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। এছাড়া ওই বাড়ির আশপাশের সবার নমুনা সংগ্রহ করা হবে। আক্রান্ত ব্যক্তিকে তার বাড়িতে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তার সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম জানান, কোভিট-১৯ পসিটিভ ফলাফল আসার পরপরই ঐ মহিলার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তার পরিবারের সদস্য ছাড়াও পুরো এলাকাবাসীকে সর্তক করা হয়েছে।