মানিক হোসেনঃ

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কর্তব্য অবহেলা, জনহয়রানি ও ঘুষ-দুর্নীতিসহ অভিযোগের শেষ নেই জনগণের।

তবে এর ব্যতিক্রম কর্মোদ্যম, দায়িত্বশীল কর্মকর্তাও রয়েছে। যারা লোভ লালসার উর্ধ্বে উঠে নিজ প্রতিষ্ঠানকে গড়ে তোলেন জনবান্ধব ও বিপদগ্রস্ত মানুষের আশ্রয়স্থল।

এদের মধ্যে দিনাজপুর চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ গোলাম রব্বানী নেহাতেই কম ছিলো না।

আজ ১৯ নভেম্বর ২০১৯ এই উপজেলায় তার দায়িত্বকাল ২ বছর ৯ মাস ১৮ দিন পূর্ণ হয়েছে।
২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারী তিনি চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব নিয়েছিলেন।

তিনি  আগামীকাল পঞ্চগড় জেলার তেতুঁলিয়া উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে যোগদান করবেন ।

তাঁর বন্ধু সুলভ আচরন ও কর্মদক্ষতায় পরিবর্তন এনে দিয়েছে উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র।

বান্ধবপূর্ন এই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কর্মকাণ্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন উপজেলার জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

বন্ধসুলভ ও তরুন অভিভাবক হয়ে দক্ষ প্রশাসক হিসেবে উপজেলার সব শ্রেণি-পেশার মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছিলেন তিনি।

অনেকের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে অনেক আলোচিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বেশ ভালো প্রশংসা কুড়িয়েছেন এই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ গোলাম রব্বানী বলেন, চিরিরবন্দরে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক এবং সমাজের বিশিষ্টজনেরা সব সময় আমার কাজে সহযোগিতা করছেন। আমি আপনাদের কথা ভুলবো না। রাষ্ট্র ও জনগনের কাজ পরিচালনা করতে গিয়ে আমার অগোচরে কেউ যদি কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। এই যাবার বেলায় চিরিরবন্দর উপজেলাবাসীর কাছে আমি দোয়া কামনা করছি।  এই এলাকার মানুষের জন্য সবসময় আমার থাকবে অবিরাম ভালোবাসা।