গণ্যস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে জমি দখলের পাশাপাশি এবার মাছ চুরির অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার (২৪ অক্টোবর) রাতে কাজি মহিবুল নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। আশুলিয়া থানায় জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে জমি দখল, চাঁদাবাজি, মাছ চুরিসহ বিভিন্ন অভিযোগে দায়ের করা মামলার সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচে।

এবারের মাছ চুরির মামলায় জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে প্রধান আসামী করে গণবিশ্ববিদ্যালয়ের দুই জনসহ কয়েক জন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিকে আসামি হিসেবে রাখা হয়েছে। আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) জাবেদ মাসুদ মামলা হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মালিকানাধীন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশে কাজি মহিবুলের ১৯ একর জমি রয়েছে। তিনি ওই জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ মাছ চাষ করে আসছেন। তবে বেশ কিছু দিন যাবৎ জাফরুল্লাহর লোকজন জমিটি দখলের চেষ্টা করছিলেন ও জমির মালিককে মোটা অংকের চাঁদার দাবিতে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এছাড়াও ওই ব্যক্তির পুকুর থেকে জাফরুল্লাহ তার লোকজনদের দিয়ে মাছ চুরি করিয়ে নিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গণ্যস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নামে চাঁদাবাজি ও জমি দখলসহ একাধিক অভিযোগে গত (২৩ অক্টোবর) মঙ্গলবার রাতে নাসির আহম্মেদ, একই অভিযোগে (২১ অক্টোবর) রবিবার রাতে সেলিম আহম্মেদ, ১৯ অক্টোবর রাতে হাসান ইমাম ও ১৫ অক্টোবর রাতে মানিকগঞ্জের মোহাম্মদ আলী নামের এক ব্যক্তি পৃথক চারটি মামলা দায়ের করেছেন।