অভিনেতা ডি এ তায়েব ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি অভিনীত সিনেমা ‘অন্ধকার জগত’। বদিউল আলম খোকন পরিচালিত সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে গত (শুক্রবার) ২২ ফেব্রুয়ারি। ওইদিন থেকে দেশের ৫৩ প্রেক্ষাগৃহে চলছে এই সিনেমা। মুক্তির পর ‘অন্ধকার জগত’ কেমন চলছে?

দর্শকরা ডি এ তায়েব ও মাহিয়া মাহি জুটিকে কতটা গ্রহণ করেছে? আজ রবিবার জানার চেষ্টা করা হয়েছে দেশের কয়েকটি সিনেমা হলে। সবখান থেকেই এসেছে ইতিবার খবর। দেশের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী সিনেমা হল মধুমিতা। এর ব্যবস্থাপক রেজাউল করিম বলেন, ‘অন্ধকার জগত’ সিনেমাটা মোটামুটি ভালো চলছে। সেল রিপোর্ট ভালো। আসলে সিনেমার বাজারই তো মন্দা। এ বছর যে ছবিগুলো মুক্তি পেয়ে মধুমিতায় চলছে তার মধ্যে অন্ধকার জগত ভালো চলছে।

রাজধানীর আরেক দর্শকপ্রিয় সিনেমা হল বলাকা। এর ব্যবস্থাপক শাহীন বলেন, ‘ফাগুন হাওয়ায়’ ভালো সিনেমা। সেটাও এক সপ্তাহের বেশি চালাতে পারিনি। তাহলে বুঝুন ব্যবসার কী অবস্থা। ‘অন্ধকার জগত’-এর অবস্থা মোটামুটি ভালো। শুক্র ও শনিবার ভালো দর্শক হয়েছে। পুরো সপ্তাহ যদি এই ধারা ঠিক থাকে, তাহলেই আমরা খুশি।

দেশের সবচেয়ে বড় সিনেমা হল যশোরের মণিহার। হলটির ব্যবস্থাপক তোফাজ্জেল বলেন, এই বছর এখন পর্যন্ত কোনো সিনেমাই ভালো যায়নি। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছরের শুরুটা একেবারে মন্দা। ‘অন্ধকার জগত’ সিনেমাটাও বেশ ভালো যাচ্ছে। এর মোটামুটি ভালো প্রচার হয়েছে। সেদিন থেকে বেশ ভালো দর্শক টানছে।

এদিকে, ঢাকার জোনাকি, পূরবী, টঙ্গির চম্পাকলি,  বগুড়ার সোনিয়া, সিলেটের নন্দিতা, রংপুরের শাপলা মতো বড় বড় সিনেমা হলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার ও শনিবার অন্ধকার জগত দেখছে প্রচুর দর্শক আসে। এ বছর যে কটি ছবি মুক্তি পেয়েছে সে তুলনায় অন্ধকার জগত ছবি বেশি দর্শক সমাগম হয়েছে।

ছবির নায়ক ডিএ তায়েব বলেন, প্রথমদিনে রাজধানীর কয়েকটি সিনেমা হলে হাউজফুল ছিল এমনও শুনেছি ব্ল্যাকে টিকেট কিনে দর্শক ছবি দেখেছে। ছোটবেলায় আমি যখন হলে গিয়ে ছবি দেখেছি তখন ব্ল্যাকে অনেকবার টিকেট কিনে দেখেছি। অনেকদিন পর হলের কর্মচারিরা দর্শকদের সামাল দিতে হিমশিম খেয়েছেন বলে জানিয়েছেন। ছবি সেল এবং দর্শকদের আগ্রহ নিয়ে আমি সন্তুষ্ট।

‘অন্ধকার জগত’ সিনেমায় ডি এ তায়েব ও মাহিয়া মাহি ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন মিশা সওদাগর, আনোয়ারা, আলেকজান্ডার বো ও মৌমিতা মৌ প্রমুখ। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে এসজি প্রোডাকশন।

https://youtu.be/WUq_wgNDW1k