সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মেদ বিন সালমানকে হত্যার চেষ্টা করেছিলো একটি সন্ত্রাসী দল। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে চলতি বছরের গোড়ার দিকে মিশরের সিনাই উপত্যাকা থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

গত পহেলা নভেম্বর রিয়াদে সফরকারী একটি খ্রিস্টান প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করার সময় এই দাবি করেছেন স্বয়ং সৌদি যুবরাজ। তিনি জানান, ওই সন্ত্রাসীদের সেলে কিছু সৌদি নাগরিকও আছে।

জোয়েল রোসেনবার্গ নামক এক ইসরায়েলি নাগরিকের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ইসরায়েলি পত্রিকা ‘দ্য জেরুজালেম পোস্ট’।

সৌদি সফরকারী ওই খ্রিস্টান প্রতিনিধি দলের প্রধান ছিলেন ইসরায়েল ও আমেরিকার যৌথ নাগরিক জোয়েল রোসেনবার্গ। ওই ইসরায়েলি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার ঘটনাকে মারাত্মক অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তিনি জানান, খাশোগি হত্যাকে সমর্থন করেন না সৌদি যুবরাজও। তিনি এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির মুখোমুখি করবেন বলে জানিয়েছেন। বিরোধীরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তাকে জড়াচ্ছে বলেও সৌদি যুবরাজ দাবি করেন।

ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর ঘণিষ্ঠ বলে পরিচিত রোজেনবার্গ আরো জানান, ওই বৈঠকে সৌদি যুবরাজ ইরান ও রাশিয়ার পাশপাশি তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়েপ এরদোয়ানের নিন্দা করেন।

সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর