মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

কনকনে শীত আর হিমেল বাতাসের পাশাপাশি গত কয়েক দিন ধরে সুর্যের দেখা নেই হিমালয়ের পাদদেশের পার্শ্ববর্তী দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায়। ফলে শীতের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে কয়েকগুণ। আর এই প্রাদুর্ভাবে উষ্ণতার কম্বল নিয়ে অসহায়-দুস্থ ও শীতার্তদের দুয়ারে দুয়ারে ছুটছেন খানসামা উপজেলার খামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজেদুল হক সাজু।

বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত খামারপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাজেদুল হক সাজু তাঁর নিজ উদ্যোগে নিজেই ভ্যানে করে কম্বল নিয়ে ডাঙ্গাপাড়া, ভান্ডারদহ ও গাড়পাড়া গ্রামে শীতার্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রায় দেড় শতাধিক কম্বল বিতরণ করেন। শুধু তাই নয়, গত দুই সপ্তাহ ধরে তিনি একেক দিন এক একটি গ্রামে গিয়ে শীতার্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের গায়ে মুড়িয়ে দিচ্ছেন উষ্ণতার কম্বল। আবার নেতাকর্মীদের মাধ্যমেও শীতার্তদের বাড়ি বাড়ি কম্বল পৌছে দিচ্ছেন তিনি। এ পর্যন্ত প্রায় দেড় হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। আর এসব কম্বল পেয়ে খুশি শীতার্তরা।

এ বিষয়ে খামারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সাজেদুল হক সাজু বলেন, সরকারী ও দলীয় ভাবে কম্বল বিতরণের পর দিন দিন শীতের প্রাদুর্ভাব বাড়ছে। এর ফলে ইউনিয়নের নিম্ন আয়ের মানুষদের কথা চিন্তা করে নিজেই কম্বল কিনে নেতাকর্মীদের মাধ্যমে ও নিজেই তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে একটি করে কম্বল তুলে দিতে পেরে আমাকেও অনেক ভাল লাগছে। ইউনিয়নের মানুষের দুঃখে কষ্টে সব সময় পাশে থাকার চেষ্টা করেছি এবং আগামীতে থাকবো। শীতের প্রাদুর্ভাবে শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকল বিত্তবানদের এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন তিনি।