মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার গোয়ালডিহি ইউনিয়নে গত ৩ দিনে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ২ জন গুরুতর আহত হয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সূত্রমতে, গত রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার গোয়ালডিহি ইউনিয়নের তাঁতীপাড়া স্কুলের সামনে সড়কে মটরসাইকেল-নসিমন সংঘর্ষে চালক কলেজ ছাত্র নাসিম ইসলাম (২০) নিহত হয়েছেন। তিনি আংগারপাড়া ইউনিয়নের গুন্দুশাহপাড়ার জসিম উদ্দিনের ছেলে এবং আহত নাজমুল একই এলাকার বাসিন্দা। গত শনিবার দুপুরে একই ইউনিয়নের পুলহাটে ট্রাক্টর চাপায় সৈয়দপুরের মোটরসাইকেল চালক কলেজ ছাত্র বাঁধন ইসলাম (২৪) নিহত হন। এ ঘটনায়ও গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন নিলয় (২২) নামে আরেক মোটরসাইকেল আরোহী। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার পূর্ব হাসিমপুর চৌধুরী পাড়া মোড়ে মাইক্রো থেকে নামার সময় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আব্দুল হামিদ (৫৫) নামে পূর্ব হাসিমপুর চৌধুরী পাড়ার এক বৃদ্ধ নিহত হন।

এসব ঘটনায় অবৈধ ট্রাক্টর ও নসিমন বন্ধ করা এবং অদক্ষ ও অপেশাদার চালককে দায়ি করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছে নিহতদের পরিবার ও এলাকাবাসী। তবে নাবালক ও অদক্ষ ছেলেদের হাতে মোটরসাইকেল তুলে না দেওয়ার ব্যাপারে অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন সচেতন সমাজ।

তবে খানসামা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কামাল হোসেন বলেন, এসব ঘটনায় নিহতের পরিবার কোন ধরনের অভিযোগ কিংবা মামলা করেন নি। সড়ক দূর্ঘটনা এড়াতে এলাকায় এলাকায় গিয়ে সচেতনতা মূলক সভা ও সেমিনার করা হচ্ছে। রাস্তায় চলাচলে সকলকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন, উপজেলায় প্রায় দেড় শতাধিক ট্রলি, ট্রাক্টর ও নসিমন রয়েছে। অদক্ষ চালক ও গাড়ি নিয়ন্ত্রিতভাবে চালানোর জন্য প্রতিনিয়ত ট্রলি, ট্রাক্টর ও নসিমন মালিকদের নির্দেশনা প্রদান করা হচ্ছে। সড়ক দূর্ঘটনা রোধে সকলকে সচেতনভাবে গাড়ি চালাতে হবে।