মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

দিনাজপুরের খানসামায় উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত আহবায়ক কমিটি প্রত্যাক্ষাণ করে নতুন করে পাল্টা আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরপর নতুন আহবায়ক কমিটি আনন্দ মিছিল বের করলে তা আগের আহবায়ক কমিটি বাধা দেয়। এতে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা হয়। খবর পেয়ে খানসামা থানা পুলিশ ও স্থানীয় নেতাকর্মী এসে পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আজ ১২ জানুয়ারী বিকেলে উপজেলার পাকেরহাট গ্রোয়ার্স মার্কেটের সামনে উপজেলা ছাত্রলীগের সকল ইউনিট ছাত্রলীগের ব্যানারে নবগঠিত কমিটির যুগ্ন আহবায়ক আবু নাসের সরকারকে বহিস্কার ও নবগঠিত কমিটি পুর্ণগঠনের দাবিতে উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক আহবায়ক রেজাউল করিমের নেতৃত্বে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যদিকে উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির আহবায়ক রাকেশ গুহ ও ৫জন যুগ্ন আহবায়কের স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ১, ২ ও ৪ নং ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এবং খানসামা ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি মেয়াদউত্তীর্ণ হওয়ায় বিলুপ্তি ঘোষণা করেন।

এই কমিটি বিলুপ্তির প্রেস বিজ্ঞপ্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক আহবায়ক রেজাউল করিম মানববন্ধনে বক্তব্য দেওয়ার এক পর্যায়ে স্থানীয় সংসদ সদস্যের নির্দেশনায় ও উপজেলা আওয়ামী লীগের পরামর্শে দাবি করে নবগঠিত কমিটির ২নং যুগ্ন আহবায়ক লিটন ইসলাম লিটুকে আহবায়ক ঘোষণা করে পাল্টা নতুন ৩১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেন। এতে নবগঠিত কমিটির ৩ নং যুগ্ন আহবায়ক মোস্তাওফিক আহমেদ শামীমকেও নতুন কমিটির ১নং যুগ্ন আহবায়ক করা হয়। এছাড়াও নতুন আহবায়ক কমিটিতে সাজ্জাদ ইসলাম, সুশান্ত মহন্ত, আসাদুজ্জামান আসাদ, গোলাম মর্তুজা রতন, রুহুল আমিন, চন্দ্রদীপ কাওয়ালী, উজ্জ্বল রায়, সুমন শাহ্, হারুন-অর-রশিদ, আসাদুজ্জামান আসাদ শাহ্ ও রুহুল আমিন শাহিদকে যুগ্ন আহবায়ক ও ১৯জন সদস্য করা হয়। এরপর নতুন আহবায়ক কমিটি ঘোষণার পর সাবেক আহবায়ক রেজাউল করিমের নেতৃত্বে মানববন্ধন শেষে আনন্দ মিছিল শুরু করে দলীয় কার্যালয়ের সামনে পৌছলে আগের নবগঠিত কমিটি বাধা দেয়। এর এক পর্যায়ে দু’গ্রুপ হাতে লাঠি নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মোস্তফা আহমেদ শাহ্ ও উপজেলা যুব আওয়ামী লীগের আহবায়ক সাবেক ছাত্রনেতা আবুল কালাম আজাদসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সফিউল আযম চৌধুরী লায়ন মুঠোফোনে জানান, এ ধরনের কোন কমিটি গঠনের নির্দেশনা কিংবা পরামর্শ কাউকে দেওয়া হয় নি। আর ছাত্রলীগের এ ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা কখনো আশা করি নি। আমি এখন ঢাকায় অবস্থান করছি। এমপি মহোদয় ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাথে পরামর্শ করে জেলা ছাত্রলীগের সাথে কথা বলে দ্রুত সময়ে এ সমস্যার সমাধান করা হবে।

এ বিষয়ে খানসামা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কামাল হোসেন বলেন, ছাত্রলীগের দু’পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে কোন হতাহতের খবর পাই নি। এ ঘটনায় কোন অভিযোগ পেলে তা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।