বাঙালিয়ান ডেক্সঃ

 

পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে ও মেরুদণ্ডের দুই হাড়ের ডিস্ক নষ্ট হয়ে মৃত্যুশয্যায় থাকা বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অলরাউন্ডার চামেলী খাতুনের চিকিৎসার সার্বিক দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চামেলীর বাসায় গিয়ে তাকে এই খবর দেন।
চামেলীর বাড়ি রাজশাহী নগরীর দরগাপাড়া এলাকায়। ২০১১ সালে পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেলে জাতীয় দল থেকে অবসর নেন। এক সময়ের মাঠ কাঁপানো এই অলরাউন্ডার এখন পার করছেন জীবনের চরম দুঃসময়। লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ার পাশাপাশি মেরুদণ্ডের দুই হাড়ের ফাঁকে থাকা নরম ডিস্কগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তার শরীরের পুরো ডান পাশ অবশ হয়ে যাচ্ছে।

চিকিৎসকরা জানান, তার চিকিৎসায় প্রয়োজন অন্তত ১০ লাখ টাকা। কিন্তু সেই সামর্থ্য নেই চামেলীর পরিবারের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে তার পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও চামেলীর ব্যাপারে বেশ ইতিবাচক। এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতার আশ্বাস পেলেন চামেলী।

সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদেরের ফেসবুক আইডিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে পোস্ট দেয়া হয়। তাতে বলা হয়, স্থানীয় সরকার বিভাগের রাজশাহীর উপ-পরিচালক পারভেজ রায়হানের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা চামেলীর বাসায় গিয়ে জানিয়েছেন যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। রাজশাহীর মানুষ ও প্রশাসন তার সঙ্গে আছে।

এর আগে সকালে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন চামেলীর বাসায় গিয়ে তার চিকিৎসার খোঁজ নেন। এ সময় তিনি তাৎক্ষণিকভাবে চামেলীকে এক লাখ টাকা দেন এবং তার চিকিৎসার জন্য যা যা করা প্রয়োজন তা করার প্রতিশ্রুতি দেন। চামেলীর ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ করবেন বলেও তখন জানান।

 

ঢাকা টাইমস