বাঙালিয়ান ডেক্স:

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার মধ্যেরচর গ্রাম থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুহিন সরকার ও নাছরিন আক্তার রুমি নামে এক দম্পতিকে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে পুলিশ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

তুহিনের পরিবার জানিয়েছে- রবিবার বিকেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাদা পোশাকধারী কিছু সদস্য ও নারী সদস্য তুহিন ও তার স্ত্রী নাছরিনকে আটক করে নিয়ে যায়। এ সময় রাস্তায় পুলিশের দুটি পিকআপভ্যানে পুলিশ ছিল। তাদেরকে কেন তুলে নেয়া হচ্ছে পরিবারের পক্ষ জানতে চাওয়া হলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাদা পোশাকধারীরা কোনো জবাব দেননি।

স্বজনরা জানান, তুহিন ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে তুলে নেয়ার বিষয়টি মেলান্দহ থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে তারা এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে তাদেরকে জানানো হয়েছে।

তুহিনের বাবা বিএডিসির অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী মফিজ উদ্দিন সরকার বলেন, তিন ছেলের মধ্যে সবার ছোট তুহিন এসএসসি পাস করে সংসার দেখাশুনা করছে। বড় ছেলে সেনাসদস্য, অপর ছেলে একটি প্রাইভেট স্কুলে শিক্ষকতা করে। তুহিন কোনো খারাপ কাজে জড়িন নেই বলে দাবি পরিবার ও প্রতিবেশীদের।

তুহিনকে পরিবারের কাছে ফেরৎ বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে দেয়ার দাবি স্বজনদের।

পুলিশের উপস্থিতির বিষয়টি অস্বীকার করে মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গাজী সাখাওয়াত হোসেন বলেন, তুহিন ও তার স্ত্রীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে তুলে নেয়ার বিষয়টি তাদের জানা নেই। তবে বিষয়টি তাকে অবহিত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন।

ঢাকাটাইমস