দেশ বরেণ্য অর্থপেডিক চিকিৎসক ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. এম আমজাদ হোসেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। শনিবার কভিড-১৯ টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ আসায় ও কিছু উপসর্গ থাকায় তাঁকে রাজধানীর ধানমন্ডি ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী আকরাম জানান, ডা.এম আমজাদ হোসেন স্যার করোনা কালীন সময়ও রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার পাশাপাশি উত্তরের জেলা দিনাজপুরের তৃণমূল মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন আর সম্প্রতি শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে ঢাকায় ফেরার পরে কিছু উপসর্গ থাকায় তিনি স্যাম্পল দিলে ওনার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।  অধ্যাপক ডা.আমজাদ হোসেনের একমাত্র সন্তান আজমত হোসেন সৈকত বাবার দ্রুত সুস্থতার কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি অব অর্থোপেডিক সার্জারি অ্যান্ড ট্রমালোজি (SICOT) এর ভাইস প্রেসিডেন্ট অর্থপেডিক সার্জন অধ্যাপক ডা. এম আমজাদ হোসেন একজন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় ঊরুতে গুলিবিদ্ধ হলে ভারতের সামরিক হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন।

পরবর্তীকালে বঙ্গবন্ধুর আমন্ত্রণে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা দিতে দেশে আসা আন্তর্জাতিক বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জন ডা. আর জে গাস্টের অধীনে অর্থোপেডিক চিকিৎসা শুরু করেন। তাঁর নেতৃত্বে দেশে কোমর ও হাঁটু প্রতিস্থাপন (হিপ অ্যান্ড নি রিপ্লেসমেন্ট) সার্জারিতে এসেছে বৈপ্লবিক সাফল্য। আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে এ পর্যন্ত সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি এ ধরনের সার্জারি সম্পন্ন করেছেন। তিনি একজন সমাজ সেবকও। উত্তরের জেলা দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে উপজেলায় তিনি গড়ে তুলেছেন স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ তিনি এবি ফাউন্ডেশনেরও প্রতিষ্ঠাতা।