বাংলাদেশ-চীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বৈঠকটি শুরু হয়। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। অন্যদিকে চীনের পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির স্ট্যাট কাউন্সিলর ও জননিরাপত্তামন্ত্রী ঝাও কেজি।

বৈঠকে অংশ নিতে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে সচিবালয়ে উপস্থিত হলে চীনের জননিরাপত্তা বিষয়কমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন। এরপর চীনের মন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রাঙ্গণে অস্থায়ী মঞ্চে দাঁড়িয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) একটি দলের সালাম গ্রহণ করেন ঝাও কেঝি। এরপর দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে সন্ত্রাসবাদ দমনে গোয়েন্দা তথ্য আদান প্রদান ও প্রশিক্ষণ, সাইবার অপরাধ ও মানি লন্ডারিং নিয়ে উভয় দেশের মধ্যে আলোচনা হবে। একইসঙ্গে এসব বিষয়ে যৌথ দল গঠন করা হবে বলে জানা গেছে।

বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও অধীন সংস্থা প্রধানরা উপস্থিত রয়েছেন। চীনের পক্ষে রয়েছেন ঝাও কেঝির নেতৃত্বে দেশটির ২৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল।

নিরাপত্তা সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করতে বৃহস্পতিবার ঢাকায় আসেন চীনের জননিরাপত্তা বিষয়কমন্ত্রী ঝাও কেজি। এরপর গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি।

সূত্র:ঢাকাটাইমস