খুরশিদ জামান কাকন:

এক মাইল কিংবা দুই মাইল নয়, দীর্ঘ ২০ মাইল এক দ্বীপ। আর এই গোটা দ্বীপ জুড়ে শুধু সাপ আর সাপ। চার হাজার সাপের বিশাল এক রাজ্য গড়ে উঠেছে এই দ্বীপে।

সেখানে মানুষ নেই, নেই বসতি। দ্বীপের একপাশ থেকে আরেক পাশ শুধু সাপের বিচরণ। তাই দ্বীপের নামকরণ করা হয়েছে সাপের দ্বীপ।

দ্বীপটি অবস্থিত ব্রাজিলের সাও পাওলো সমুদ্র উপকূলে। সোনালী তীক্ষ্ম আকৃতির মাথা সদৃশ এই সাপের বসবাস। বোথরোপস ইনসুলারিস নামের এই সাপ কেবল এ অঞ্চলেই বাস করে।

বিষাক্ত সাপের চেয়ে সাধারণত ৫ গুণ বেশি বিষধর এই সাপ। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে বিষধর সাপ হিসেবেও স্বীকৃত।

এদের বিষ এতোই ভয়ানক যে মানুষের মাংসকে মুহূর্তে গলিয়ে ফেলতে পারে। বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ও বিষধর এই সাপের অস্তিত্ত্ব রক্ষায় ব্রাজিল সরকার এই দ্বীপে মানুষের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকার বেশিরভাগ মানুষের মৃত্যুর কারণ এই সাপ। জনমানবহীন এই রাজ্যে পাখি সাধারণত এদের প্রধান খাবার। সাপের এই রাজ্যে জনমানবের বাস না থাকলেও প্রতিবছর সাপের ওপর গবেষণা করতে কিছু বিজ্ঞানীকে সেখানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়।