মোঃ নুরনবী ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক

দিনাজপুরের খানসামায় ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ব্যক্তিদের শাস্তি এবং সকল নারীর নিরাপত্তার দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২২ এপ্রিল সোমবার বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ও বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ খানসামা উপজেলা শাখার আয়োজনে উপজেলার পাকেরহাট সোনালী ব্যাংকের সামনে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এই নির্মম ঘটনায় যারা জড়িত, তাদের অবশ্যই ফাঁসি দিতে হবে। বিশেষ করে সম্প্রতি নারী ও শিশু নির্যাতনের মাত্রা বেড়েছে অনেকাংশে। হরহামেশাই পত্রপত্রিকার পাতায় শিশু ধর্ষণের মতো ঘটনা বাড়তে দেখা যাচ্ছে। সঙ্গে বেড়েছে সামাজিক উদ্বেগ। সরকারকে এখন এর লাগাম টেনে ধরতে হবে। তা না হলে সামাজিক অবক্ষয় রোধ করা যাবে না।

বক্তারা দাবি করেন, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যৌন নিপীড়ন হবে এবং এতে যারা জড়িত থাকবে, তাদের তাৎক্ষণিক অব্যাহতি দিয়ে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দিতে হবে। তা না হলে এই ধরনের ঘটনা বারবার ঘটতে থাকবে। যে পুলিশ কর্মকর্তা নুসরাতের মামলা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করেছেন, তাঁকেও বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক ধীমান দাস, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আহবায়ক জীতেন্দ্রনাথ রায়, সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী সহ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ, নিজেরা করি সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষিকাবৃন্দ।